শিক্ষাব্যবস্থা

শুরু হলো আমাদের পথচলা

বাংলাদেশের শিক্ষা
বাংলাদেশের শিক্ষা

আজ ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১১ জাতীয় শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে বাংলা ভাষায় শিক্ষাবিষয়ক এই সাইটটি পুরোপুরি চালু করতে পারায় আমরা অত্যন্ত আনন্দিত। বছরখানেকেরও বেশি সময় ধরে পরীক্ষামূলকভাবে চালু থাকা এই সাইটটি আজ থেকে পুরোপুরি চালু হলো। এই সাইটটি তৈরিতে যারা সময় ও শ্রম দিয়েছেন আমরা তাদের সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাচ্ছি। বিশেষ করে পরীক্ষামূলকভাবে চলাকালে যে সমস্ত পাঠক সাইটটি খুঁজে বের করে বিভিন্ন লেখা পড়েছেন, সেগুলোর ওপর আলোচনা করেছেন এবং আমাদেরকে ইমেইলে সাইট সম্পর্কে মতামত জানিয়েছেন, আমরা তাদের প্রতি কৃতজ্ঞ। একটি পরীক্ষামূলক সাইটে লেখা পাঠানো অর্থ হচ্ছে প্রকৃতপক্ষে সেই লেখার কোনো ধরনের প্রচার না পাওয়া। এই সত্যটি জেনেও যে সমস্ত লেখক আমাদের কাছে লেখা পাঠিয়েছেন, আমরা তাঁদের প্রতিও কৃতজ্ঞ।

এই সাইটের স্লোগান ঠিক করা হয়েছে: জ্ঞান হোক উন্মুক্ত, সবার জন্য। আমরা চাই জ্ঞান কখনো কারো কাছে কুক্ষিগত না থাকুক। যে জ্ঞান মানুষ অর্জন করেছে, সেই জ্ঞান সবার মাঝে ছড়িয়ে দেওয়াই হোক জ্ঞান অর্জনের অন্যতম উদ্দেশ্য। জ্ঞান তখনই কাজে লাগবে যখন তা সবার মাঝে ছড়িয়ে দেয়া যাবে। জ্ঞান তখনই শক্তি হিসেবে দেখা দিবে যখন তা সবাই ব্যবহার করতে পারবে। ঠিক এই বিশ্বাস ও প্রত্যয় থেকে আমরা এই সাইটের কাজ শুরু করেছিলাম। সুতরাং, এই সাইটে যা কিছু প্রকাশিত হবে, তা হবে সবার জন্য উন্মুক্ত। শিক্ষা ও বাংলাদেশের শিক্ষা বিষয়ে যে কেউ এখানে লিখতে পারবেন। অবাণিজ্যিক উদ্দেশ্যে জ্ঞানার্জনের কাজে যে কেউ এই সাইটের লেখা ব্যবহার করতে পারবেন।

এই সাইটটি মূলত বাংলাদেশের শিক্ষা বিষয়ে। বাংলাদেশের শিক্ষার সাথে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে যা কিছু সম্পর্কিত, সেই বিষয়গুলো নিয়ে লেখা প্রকাশ হবে এখানে। আজকে এই আনন্দের দিনে, আমরা সবাইকে আহ্বান জানাই, বাংলাদেশের শিক্ষা-সম্পর্কিত আলোচনা-সমালোচনা-পর্যালোচনা-বিতর্কের ঝড় উঠুক এখানে। প্রত্যেকের মধ্যেই দেশের শিক্ষাব্যবস্থা নিয়ে নানা প্রশ্ন আছে, আছে নানা মতামত বা বক্তব্য। কেউ সরাসরি শিক্ষা সেক্টরে কাজ করে সেই অভিজ্ঞতার আলোকে বক্তব্য রাখতে পারেন, কেউ পারিপার্শ্বিক অবস্থা দেখে মন্তব্য করতে পারেন আবার কেউ বা ছোটবেলায় নিজ শিক্ষার স্মৃতি মনে করে মতামত ব্যক্ত করতে পারেন। আমাদের কাছে সবার বক্তব্যই গুরুত্বপূর্ণ। শিক্ষা এমন কোনো বিষয় নয় যে শুধু এর সাথে সম্পর্কিত বা বিশেষজ্ঞ ব্যক্তিরাই এ নিয়ে কথা বলতে পারবেন। একটি দেশের শিক্ষা কেমন হওয়া উচিত, কীভাবে চললে শিক্ষাব্যবস্থার আরো উন্নতি হবে ইত্যাদি নানা বিষয়ে প্রত্যেকের নিজস্ব চিন্তা বা অভিমত রয়েছে। এই সাইটে সব ধরনের মানুষের সব ধরনের মতামত প্রকাশের ব্যবস্থা থাকবে। বাংলাদেশের শিক্ষা নিয়ে পাঠকের দৃষ্টিভঙ্গি প্রতিফলিত হোক এই সাইটে- এটা আমাদের কামনা।

আজকের এই সাইট চালু হওয়ার মুহূর্তে আমরা তাই সবাইকে আহ্বান জানাই শিক্ষা বিষয়ে লেখা পাঠানোর জন্য। আপনার বক্তব্য, আপনার মতামত, আপনার লেখা, আপনার পরামর্শ, আপনার চিন্তাভাবনা ছড়িয়ে যাক সারা বিশ্বের মানুষের কাছে। কে জানে, আপনার আজকের বক্তব্যই হয়তো আগামী দিনে শিক্ষার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ পরিবর্তন এনে দিতে পারে।

লেখক সম্পর্কে

রেজাউল হক

সম্পাদক বাংলাদেশের শিক্ষা

এই লেখাটি সম্পাদক কর্তৃক প্রকাশিত। মূল লেখার পরিচিত লেখার নিচে দেওয়া হয়েছে।

2 মন্তব্য

মন্তব্য লিখুন